ঘন ঘন আগুন লাগা নাশকতা কি না, প্রশ্ন ফায়ার সার্ভিসের

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা

সম্প্রতি রাজধানীর সর্ববৃহৎ পাইকারি পোশাকের মার্কেট বঙ্গবাজারসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। একের পর এক এ ধরনের অগিকাণ্ড কোনো নাশকতা কি না, এমন প্রশ্ন তুলেছে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স। জরুরি সেবামূলক এই প্রতিষ্ঠানটি বলছে, ঘন ঘন অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি কোনো নাশকতা কি না, তা খতিয়ে দেখবে তদন্ত সংস্থা।

বৃহস্পতিবার (১৩ এপ্রিল) দিনগত রাতে রাজধানীর নবাবপুর সুরিটোলায় গোডাউনে লাগা ভয়াবহ আগুন প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণের পর ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল তাজুল ইসলাম চৌধুরী।

তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে আমরা অগ্নিকাণ্ডের শিকার হচ্ছি। ঘন ঘন অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি কোনো নাশকতা কি না, তদন্ত সংস্থা তা খতিয়ে দেখবে।

এদিন রাত ১০টা ৮ মিনিটের দিকে সুরিটোলার আইয়ুব ভবনে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের ১৪টি ইউনিট ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সম্মিলিতভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে।

তাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, আগুন লাগা ভবনে গ্যাসের লাইন এবং সিলিন্ডার রয়েছে। গ্যাসের লাইন থেকে নাকি অন্য কোনোভাবে আগুন লেগেছে তা পরে খতিয়ে দেখা হবে। তবে এখানকার আগুন ছিল খুবই ক্রিটিক্যাল। দ্রুততার সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করায় আগুন আশেপাশের ভবনে ছড়াতে পারেনি।

ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা বলেন, বরাবরের মতো আজও আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের বেগ পেতে হয়েছে। উৎসুক জনতার ভিড় এবারও আমাদের ভুগিয়েছে। যদিও এক ঘণ্টা ২০ মিনিটে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। সব সময় আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসকে সবার সহযোগিতা করা উচিত।

আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এখানকার কর্মচারীরা যে মেসে থাকতেন সেখান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। এখন পর্যন্ত আগুনে কোনো হতাহতের খবর পাইনি। আগুনে ২০টির মতো গোডাউন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সিএনএস ডটকম//এসএল//